ফিট
ফিট

নিজেকে যেভাবে ফিট রাখবেন!

দৈনন্দিন জীবনে চলাফেরা করতে হলে আমাদের সব কিছুর প্রয়োজন আছে যেমন আমাদের বন্ধু বান্ধবের প্রয়োজন আছে যেমন গার্লফ্রেন্ড এর প্রয়োজন আছে মা-বাবার প্রয়োজন আছে খাবার প্রয়োজন আছে তেমনি আমাদের সবার মাঝে চলাফেরার জন্য নিজের একটা ফিটনেস নিজের একটা ফিট রাখার প্রয়োজন আছে। আমরা মানুষের মাঝে একদম যদি সিম্পল ভাবে চলাফেরা করি আর এটা যদি প্রতিনিয়ত করতে থাকে তাহলে মানুষ আমাদেরকে খুবই হালকা ভাবে নাই এটা কিন্তু স্বাভাবিক এবং বর্তমান সমাজে খুবই প্রচলিত এটা আপনাকে মানতেই হবে।

আপনি যদি একটু ফিটফাট হয়ে থাকেন তাহলে আপনাকে সবাই সম্মান করবে আপনার পিছনে মানুষ চলবে আপনার একটা কথা বললে সেই কথার মূল্য তারা দিতে থাকবে আর আপনি যদি স্বাভাবিক কোন মানুষ লুঙ্গি পড়া এবং গেঞ্জি গায়ে দিয়ে একটা কথা বলেন অনেক মানুষের মধ্যে দেখবেন আপনার কথার কোন মূল্য তারা দেয়নি অথবা আপনার কথার কোন তাৎপর্য তারা রাখেনি আর যদি আপনি তাদের মধ্যে ভাল একটা পোষাক পরিধান করে একদম ফিটফাট ভাবে তাদের মধ্যে একটা কথা বলেন তারা সেটা খেয়াল দিয়ে শুনবে এবং সেটা মারার চেষ্টা করবে।

আমাদের সমাজে এখন চলে রাজনীতি ভাবে এটা মূলত আপনার কতটা ক্ষমতা তার উপর ভিত্তি করে চলে। আপনি যদি একজন সিনিয়র পারসন হন এবং আপনার কোনো ক্ষমতা নেই আর আমি যদি একজন জুনিয়র পারসন হয়ে আমার প্রচুর ক্ষমতা সেক্ষেত্রেও কিন্তু আপনি আমার কাছে একজন ছোট মানুষ বর্তমান সমাজের এটাই নিয়ম এবং এটাই হচ্ছে আমাদের সমাজে এটাই বর্তমানে প্রচলন ঘটে যাচ্ছে। বর্তমান তরুণ তরুণীদের মধ্যে সব সময় দেখবেন একটা অন্যরকম ভাব থাকে খুব কম সংখ্যক মানুষ এখন পাওয়া যায় যারা সিম্পল ভাবে মারা মানুষের মধ্যে হাঁটাচলা করে চলাফেরা করে।

আরো পড়ুনঃ  শরীর সুস্থ রাখতে যা করবেন আপনি!

যেভাবে ফিট রাখবেন নিজেকে!

নিজেকে ফিট ফিট রাখার জন্য আপনাকে ভালো একটা অবস্থানে পৌঁছাতে হবে মানুষের মত চলাফেরা করার জন্য নিজেকে মোটামুটিভাবে ফিটফাট রাখতেই হবে ভালো জামা প্যান্ট এগুলো পড়ে থাকতে হবে এতে করে মানুষের মধ্যে আপনি সম্মান বোধ করবেন মানুষ আপনাকে সম্মান দিতে শিখবে। আপনি যদি মানুষের মাঝে একদম সিম্পল ভাবে হাঁটাচলা করেন কিছুদিন পর দেখবেন আপনাকে মানুষ কোন মূল্যায়ন করেনা আপনার কথার কোন গুরুত্ব দেয় না অতঃপর ছোট বাচ্চারা যারা আছে তারাও আপনাকে গুরুত্ব দিবে না তারা আপনাকে কোনভাবে সম্মান করবে না আপনাকে সালাম দিবে না আর যদি আপনি প্রতিনিয়ত তাদের মাঝে ফিফার থাকেন তারা আপনাকে সম্মান করতে বাধ্য।

বর্তমান সমাজে বলতে গেলে আপনার পোশাক আপনার কর্ম আপনার টাকা এগুলোর উপর ডিপেন্ড করে সম্মান অর্জন করা হয় আপনি যদি একজন ভালো মনের মানুষ হয়ে থাকেন আপনি যদি একজন আলেম হয়ে থাকেন কিন্তু সেখানে আপনার সম্মান টা খুবই কম হয়ে থাকে আর আপনি যদি একজন টাকাওয়ালা হয়ে থাকেন সেক্ষেত্রে আপনার সম্মানটা ঊর্ধ্বে এরকম হয়ে থাকে। আসলে এর বিশেষত্ব হচ্ছে আমাদের বর্তমান তরুণ তরুণীদের ভুল ধারণা আমরা মনে করি টাকাওয়ালারা অনেক বেশি ক্ষমতাশীল এদের আইডি অনেক বেশি এটা আমাদের অনেক বড় একটা ভুল ধারণা থেকে আমাদের বের হতে হবে।

আমাদের সমাজে এমন মানুষ আছেন যারা প্রতিনিয়ত বুঝতে পারেন যে তারা ভুল করছে কিন্তু তারা রেগুলার এই ভুলটি করে যাচ্ছে করেই যাচ্ছে তার ওই ভুল টির মাধ্যমে আমাদের সমস্যা হচ্ছে তা জেনেও তারা নিয়মিত রেগুলার এই ভুলটি করে যাচ্ছে করেই যাচ্ছে। তারা বুঝতে পারছে এই ভুলটি করলে গরিবদের সমস্যা হবে কিন্তু তারা তাও এই ভুলের সাথে সংশ্লিষ্ট জড়িত তারা এই ভুলটি কে বিজয় দিচ্ছে না কেননা তারা এই ভুলটি করে নিজেরা প্রশান্তি লাভ করছে।

আরো পড়ুনঃ  মন ভালো রাখার কিছু সহজ টিপস

সর্বোপরি একটা কথা বলতে চাই! বর্তমান সমাজের মানুষের সাথে মিলেমিশে থাকতে হলে বর্তমান সমাজের সাথে খাপ খেতে হলে বর্তমান সমাজের সাথে মিলেমিশে থাকতে হলে আপনাকে সমাজের সাথে চলাফেরা করতে হবে সমাজ কিভাবে চলে সেটা আপনাকে ফলো করতে হবে সমাজের মানুষ কিভাবে চলে সেভাবে আপনাকে চলতে হবে। তবে আমাদের সমাজে এখনও অনেক ভালো মানুষ রয়েছে নিচে নেতাদেরকে ফলো করে তাদের মতো করে চলতে পারেন এটা কিন্তু খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয় আমাদের সমাজে যে খারাপ মানুষ রয়েছে তাদের মত চলতে হবে এমন কোন বিষয় না আপনি চাইলে আমাদের সমাজের ভালো মানুষ গুলোকে ফলো করতে পারেন এই এতে করে আপনি ভালোর পথে আলোর পথ হাঁটতে পারো।

সমাজের ভালো মানুষগুলো কিভাবে হাটে কিভাবে মানুষের মানুষের সাথে চলাফেরা করে এই বিষয়গুলো আপনি একটু ফলো করুন দেখবেন আপনিও ভাল মানুষের মত একটা হয়ে গেছেন আপনিও সম্মান পাবেন আপনিও স্নেহ পাবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *