জীবনে সফলতা

জীবনে সফলতা কোথায় গিয়ে থামবে?

জীবনে সফলতা! ধরুন আপনার সামনে একটি বিশাল ফুটবল মাঠ কিংবা ইসটুডিয়াম রয়েছে যেখানে অনেক ব্যবস্থাপনা রয়েছে একটু পরে স্টুডিয়াম এ কিংবা ফুটবল মাঠে খেলা শুরু হবে কিন্তু খেলা শুরু হওয়ার সরঞ্জামসমূহ সব রেডি প্রত্যেক দলে ১১ জন করে খেলোয়াড় রেডি রয়েছেন রেফারি আম্পিয়ার যাবতীয় সবাই তৈরি হয়েছেন এমনকি যারা এ স্কয়ার কাউন্ট করেন তারাও রেডি হয়েছেন। এমত সময় যদি স্টুডিয়াম থেকে গোল দেয়ার যে বার রয়েছে সেগুলো একটা তুলে নেয়া হয় তাহলে অবস্থাটা কেমন হবে?

অর্থাৎ খেলা শুরু হওয়ার পূর্বে মুহূর্তে যদি খেলার মাঠ থেকে গোলবার তুলে দেয়া হয় তাহলে এই খেলার ভবিষ্যৎ কিংবা এই খেলার শেষ কোথায়’ হওয়ার সম্ভাবনা আছে বলে আপনার মনে হয়? অবশ্যই তখন এই খেলাটি সামনের দিকে কন্টিনিউ করা যাবে না যতক্ষণ পর্যন্ত গোলবার বসানো না হবে।

অনুরূপভাবে আমরা এটা বুঝাতে চেয়েছি যে আমাদের জীবনের মূল লক্ষ্য জীবনটা কোথায় যাচ্ছে কোন দিকে যাচ্ছে এটা আরো আমরা বুঝতে পারছি কিনা অথবা আমাদের জীবনের যে গোলবাল রয়েছে সেটা কেউ তুলে দিচ্ছে কিনা সেদিকে আমাদের আজও খেয়াল কিংবা আমরা সে বিষয়ে অবগত আছি কিনা?

আরো একটি এক্সাম্পল!

জীবনে সফলতা

ধরুন আপনি কোথাও ভ্রমণে কিংবা কোন গন্তব্যে যাচ্ছেন। আপনি দেখতে পেলেন আপনার জন্য অপেক্ষায় রয়েছে- বাস গাড়ি, ট্রেন, উড়োজাহাজ সহ বিভিন্ন যানবাহন। কিন্তু আপনি যখন তাদেরকে জিজ্ঞেস করলেন আপনারা কোথায় যাবেন কিংবা কোন জায়গার উদ্দেশ্যে আপনারা রওনা করবেন সেই উত্তর যদি তারা বলে আপনাকে বলা যাবে না আমরা কোথায় যাবো তখন কি আপনি সেই যানবাহনগুলোকে উঠবেন? আমার মনে হয় ন ওই যানবাহনগুলো থেকে উঠতে চাইবেন না কেননা তারা অনিশ্চিত যাত্রা জন্য আপনাকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছেন।

আপনি এটা নিশ্চিত গন্তব্যে পৌঁছাবে বলে তাদেরকে বলেছেন যে আপনি কোথাও যাবেন কিন্তু তারা অনিশ্চিত গন্তব্যে বলেছে আপনাকে যাওয়ার জন্য আপনি যখন রাজি হবেন না এটাই স্বাভাবিক। অনুরূপভাবে আমরা জানি না আমাদের জীবনের গতি বা জীবনের উড়োজাহাজ কিংবা বাস গাড়ি কোন দিকে যাচ্ছে না জেনেই আমরা উঠে পড়েছি জীবনের গাড়িতে এবং এটার ড্রাইভার আমরা আমরাই সব সময় কন্ট্রোল করে থাকি কিন্তু আমরা জানি না আদৌ এটা আমাদের গন্তব্যে পৌঁছাতে সহযোগিতা করবে কিনা নাকি অন্য কোথাও পৌঁছে দিবে।

আরো পড়ুনঃ  ২০২২ নতুন বছরে অবতরণে কি আছে?

বিষয়টা হচ্ছে এরকম যে আপনি বাস উড়োজাহাজ ট্রেন এগুলোতে উঠলেন না কারণ তারা আপনাকে গন্তব্যে পৌঁছাতে সহযোগিতা করবে না বরং তারা আপনাকে অন্য কোথাও পৌঁছাতে সহযোগিতা করতে পারে কিন্তু অনুরূপভাবে আমরা যদি দেখি আমাদের জীবনটা এরকম পুরোটা কন্ট্রোল কথার দিকে যাচ্ছে তা আমরা বুঝতেই পারছি না না বুঝেই আমরা চলে যাচ্ছি কিন্তু আমাদের উচিত আমাদের জীবনকে সঠিক পথে নিয়ে সঠিক গন্তব্যে পৌঁছে দিতে সহযোগিতা করা।

জীবনে সফলতা দরজায় নাড়া দিবে!

জীবনে সফলতা

জীবনে সফলতা দরজায় নামে দিবে এটা সত্য কিন্তু এই সফলতা পেতে যে আপনাকে অনেক বেশি পরিশ্রম কোষ্ঠকাঠিন্য করতে হবে এটাও কিন্তু সত্য। পরিশ্রম দয়াকরে আপনি চাইলেই সফলতা অর্জন করতে পারবেন না কোনভাবেই সম্ভব না কারণ আজ পর্যন্ত যত সকল ম্যান রয়েছেন তারা কেউ যুদ্ধ না করে পরিচালনা করে সফলতা দরজায় আসতে পারেননি। আপনার লাইফে এমন একটা সময় আসবে যখন সফলতা আপনার নিকট চলে আসবে তখন দেখবেন সফলতা চলে আসার সাথে সাথে আপনার আপনজন বন্ধুবান্ধব সবাই আপনাকে সাপোর্ট করবে কেননা তখন আপনি সফল।

একইভাবে যখন আপনি সফল হতে পারবেন না তখন দেখবেন সবাই আপনাকে ঘৃণা করে আপনার চারপাশে কেউ নেই। আপনার অস্তিত্ব যেন অন্যরকম হয়ে থাকবে কেউ আপনাকে ভালোবাসবে না আপনার কথা কেউ শুনতে চাইবে না এমন কি আপনার কথাগুলো কারো কাছে ভালো লাগবে না কারণ আপনি ব্যর্থ আপনি সফলতা গ্রহণ করতে। তাই অনুরূপভাবে বিষয়গুলো বিবেচনা করে সমাজের সাথে তাল মিলিয়ে সবার সাথে মিলেমিশে থাকতে হলে আপনাকে সফল হতে হবে এর ব্যতিক্রম কিছুই না সফলতাই না হলে আপনার নাগালে কেউ পৌঁছাবে না এটাই স্বাভাবিক।

আরো পড়ুনঃ  গ্রাম্য সৌন্দর্য উপভোগ করা কতটা মধুময়?

জীবনে সফলতার আনন্দ কেমন?

জীবনে সফলতা

জীবনে সফলতার আনন্দ খুব অদ্ভুত। জীবনে সফলতা এতটা কঠিন যে এখানে পৌঁছানো অনেক বেশি ডিফিকাল অনেক বেশি তাপ সফলতার দরজায় পৌঁছে গেলে তখন আপনাকে অনুসরণ করবে লক্ষ লক্ষ মানুষ তখন আপনার অনুকরণ গুলো লক্ষ লক্ষ মানুষ অনুসরণ করবে তখন তারাও চাইবে আপনার মত সফল হতে এজন্য আপনার কাজগুলো তারা প্রতিনিয়ত অনুসরণ করতে থাকবে।

একইভাবে তখন আপনার নিজের মনের মধ্যে অন্যরকম একটা ফ্রি হবে যে আমার কাজগুলো মানুষ পছন্দ করে আমার কাজগুলো মানুষ অনুসরণ করে এটা আমার ভালো লাগে এরকম একটা অনুশাসন অনুকরণ আপনার মত তৈরী হবে যেটা নিয়মিত আপনার জন্য খুবই ভালো লাগবে।

একটা মানুষ ইচ্ছে করলেই কিন্তু সফলতার দরজায় পৌঁছাতে পারে না যদি ইচ্ছে করেই মানুষ সফলতার দরজায় পৌঁছাতে পারতো তাহলে হয়তো আজকে লক্ষ লক্ষ মানুষ সফলতার দরজায় পৌঁছতে কিন্তু না কখনোই সম্ভব নয় সফলতার দরজায় পৌঁছাতে অনেক অনেক পরিশ্রম করতে হবে আপনি কখন সফলতা দরজায় পৌঁছতে পারবেন এর নির্দিষ্ট টাইম নেই। হাজার হাজার মানুষ রয়েছেন যারা জীবনে সফলতা পাবে এমন স্বপ্ন নিয়ে বেঁচে আছেন কিন্তু অনেকের এমন স্বপ্ন পূরণ হয় না এমন স্বপ্ন গুলো নিয়েই দুনিয়া ছেড়ে চলে যায়।

আপনার স্বপ্নটা বাস্তবে পরিণত করতে অক্লান্ত পরিশ্রম দরকার। সফলতার দোরগোড়ায় পৌঁছে চাইলে সম্ভব না। জীবনে সফলতা কয়জন পেয়েছে আপনার আশেপাশে যারা রয়েছেন তারা কি আদৌ জীবনে সফল হয়েছেন? আপনার স্কুল লাইফে যারা আপনার বন্ধু ছিলেন তারা কি আদৌ আপনার থেকে বেশি টাকা উপার্জন করে যদি করে তাহলে আপনি তাকে অনুসরণ করেন আপনি তার কাজ গুলো অনুসরণ করেন।

আরো পড়ুনঃ  জীবনকে সহজ করা যায় কিভাবে?

জীবনের সফলতা না পাওয়ার ব্যর্থতা!

জীবনে সফলতা

জীবনে সফলতা না পাওয়ার ব্যর্থতা অনেক বেশি কষ্ট দায়ক এটা আমরা সবাই জানি। জীবনে সফলতা এমন একটা কষ্টোকাঠিনো রোগ যা সবার মাঝে বিরাজ হয়না সবার মাঝে বিরাজমান হয়না এজন্য যে আপনি হাল ছেড়ে দিবেন যে আমার মত সফলতা আসবেই না অযথা আমি চেষ্টা করে যাচ্ছি তাহলে কিন্তু আপনি ভুল করবেন। জীবনে সফলতা পাওয়ার জন্য হলেও আপনাকে অনেক অনেক বেশি পরিশ্রম করতে হবে

ব্যর্থতা বলতে আমরা কত জিনিস কে নির্ণয় করি। লাইফে কেউ একটু কষ্ট পেলেই মনে করে আমি ব্যর্থ হয়ে গেছি আমি আর সামনের দিকে আগাতে পারবো না আমি অনেক পিছিয়ে পড়ে গেছি আমি আর সামনের দিকে উঠতে পারবো না কিন্তু না চেষ্টা মানুষকে অনেক দূর অনেক অনেক দূর যেতে সহযোগিতা করে। আপনার চেষ্টা যদি এমন হয় যে আমাকে সামনের দিকে আঘাতেই হবে তাহলে আপনাকে থমকে কিংবা আপনাকে স্থগিত রাখা মোটেই সম্ভব না।

জীবনে স্টাইল মেরে জীবনে যে টাইম দিবে সময় প্রয়োজন সেটা কে ও প্রয়োজনীয় সকল কাজে ব্যবহার করছেন আর মনে মনে ভাবছেন আমি সফল হয়ে যাব আমার খুব নিকটে কিন্তু না। জীবনে সফল হতে হলে অক্লান্ত পরিশ্রম করুন সহজ এবং সরল পথ অনুসরণ করুন কঠিন পথে হেটে খারাপ পথে হেটে জীবনে সফলতা পাওয়া সম্ভব না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *